ভাসানচরে পাঠানো তিনশতাধিক রোহিঙ্গার খবর নাই!

৪৫

স্টাফ রিপোর্টার, রোহিঙ্গা টিভি : 

চোরাই পথে মালয়েশিয়া যেতে ব্যর্থ হওয়া তিন শতাধিক রোহিঙ্গাকে আটক করে নোয়াখালীর ভাসানচরে পাঠিয়েছিল বাংলাদেশীয় প্রশাসন। তাদেরকে ভাসানচরে নির্মিত আশ্রয়ণ প্রকল্পে রাখা হয়েছে বলে জানা গিয়েছিল। কিন্তু সেসব রোহিঙ্গা কেমন আছে? কি করছে? তাদের জীবন-জীবিকা কিভাবে চলছে? এসব প্রশ্নের কোন উত্তর নাই কারো কাছে।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনায় নোয়াখালীর দ্বীপাঞ্চল ভাসানচরে ১ লাখ রোহিঙ্গা স্থানান্তরের জন্য একটি আশ্রয়ণ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়। কিন্তু পানিবেষ্টিত দ্বীপে জীবনের ঝুঁকির কথা ভেবে রোহিঙ্গারা ভাসানচর যেতে নারাজী জাহির করলে, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ও মানবাধিকার সংস্থার লোকজন ভাসানচর পরিদর্শন করেন। তারাও রোহিঙ্গাদের ভাসানচরের মতো দ্বীপে না পাঠাতে বাংলাদেশ সরকারকে আহ্বান জানান। ফলে বাস্তবায়নের ১ বছরে কোন রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে স্থানান্তর করা না গেলেও, দালালের খপ্পরে পড়ে চোরাই পথে মালয়েশিয়া যেতে ব্যর্থ হওয়া তিন শতাধিক রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে পাঠায় প্রশাসন।

ভাসানচরের আশ্রয়ণ প্রকল্প

শনিবার (১লা আগস্ট) পুরো বাংলাদেশে ঈদুল আযহা উদযাপন করা হয়েছে। কক্সবাজারের ৩৪টি ক্যাম্পের রোহিঙ্গারা ঈদের নামাজ আদায় পরবর্তী প্রশাসন প্রদত্ত গোশতও পেয়েছে অনেকে। কিন্তু ভাসানচরের প্রেরিত রোহিঙ্গারা কিভাবে ঈদ উদযাপন করছে কারো জানা নাই। বাংলাদেশীয় মিডিয়াতে এ ব্যাপারে কোন খবর নাই।

জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআরকে গত ২ মাসেও ভাসানচরে কাজ করতে অনুমোদন দেয়া হয়নি। ফলে শরণার্থী বিষয়ক এ সংস্থাটিতেও ভাসানচরের রোহিঙ্গাদের বিষয়ে কোন আপডেট নাই।

এই বিষয়ে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার (ইউএনএইচসিআর) মুখপাত্র মোস্তফা সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘মে মাসের শুরুতে উপকূল ও জলসীমা থেকে উদ্ধার হওয়ার তিন শতাধিক রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে নিয়ে যাওয়া হয়। ওই শরণার্থীদের জন্য সেখানে জাতিসংঘের প্রবেশাধিকার এখন খুবই জরুরি। জাতিসংঘ ইতোমধ্যে সরকারকে জানিয়েছে ভাসানচরে স্থানান্তরিত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের সঙ্গে দেখা করে তাদের মানবিক পরিস্থিতি এবং সুনির্দিষ্ট প্রয়োজন মূল্যায়ন করতে সেখানে সুরক্ষা সফর করার জন্য আমরা প্রস্তুত আছি।’

এদিকে কক্সবাজারের ক্যাম্প থেকে ভাসানচরে আরো রোহিঙ্গা স্থানান্তর করতে একটি রোহিঙ্গা প্রতিনিধি দলকে ভাসানচরে নিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি চলছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনের (আরআরআরসি) মাহবুব আলম তালুকদার বলেন, ‘এখনও তারিখ ঠিক করেনি সরকার।’

 

Comments are closed.